BDExpress

বিশ্বকাপে কলা, ট্রেন ও স্ত্রীদের সঙ্গে চায় বিরাট অ্যান্ড কোং

এই সময়: আগামী বছর বিশ্বকাপের সময় ইংল্যান্ডে এক কেন্দ্র থেকে অন্য কেন্দ্রে ট্রেনে ভ্রমণ করতে চায় টিম ইন্ডিয়া। একই সঙ্গে চায়, প্র্যাক্টিস বা ম্যাচ চলাকালীন ড্রেসিংরুমে যেন পর্যাপ্ত কলার ব্যবস্থা থাকে। এ ছাড়া অনুরোধের মধ্যে রয়েছে স্ত্রীরা যাতে গোটা সফরে থাকতে পারেন। সম্প্রতি হায়দরাবাদে ক্রিকেটারদের সঙ্গে সিওএ বা কমিটি অফ অ্যাডমিনিস্ট্রেটর্সের রিভিউ মিটিংয়ের সময় এই প্রস্তাব বিরাটদের পক্ষ থেকে দেওয়া হয়েছে।

ট্রেন ভ্রমণের ব্যাপারটা ইংল্যান্ডে খুবই প্রাসঙ্গিক। কারণ গত ইংল্যান্ড সফরে সর্বত্রই টিম ইন্ডিয়া বাসে এক কেন্দ্র থেকে অন্য কেন্দ্রে গিয়েছিল। সেখানে সমস্যা হল, অধিকাংশ ক্ষেত্রে শহরে ঢোকার সময় যানজটে পড়তে হয়েছিল কয়েকবার। এতে সময় নষ্ট হয় যথেষ্ট। এতে প্র্যাক্টিস শিডিউল অনেক ক্ষেত্রে বিপর্যস্ত হয়েছে। এই সমস্যা এড়াতেই পরের বিশ্বকাপে ট্রেনে একটা রিজার্ভ কোচ চায় টিম ইন্ডিয়া, যেখানে গোটা টিম এক সঙ্গে যাতায়াত করবে। সিওএ প্রথমে ব্যাপারটা নিয়ে নিশ্চিত না থাকলেও বিরাট কোহলি বলেন, ইংল্যান্ড টিম সব সময় ট্রেনেই যাতায়াত করে। একটা পুরো কম্পার্টমেন্ট যদি বুক করা যায়, অনেক সময় বাঁচানো যাবে।

এই সভায় ক্রিকেটারদের পক্ষ থেকে ছিলেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি, সহ অধিনায়ক অজিঙ্ক রাহানে, সিনিয়র ক্রিকেটার রোহিত শর্মা, কোচ রবি শাস্ত্রী এবং নির্বাচকদের চেয়ারম্যান এমএসকে প্রসাদ।

সিওএ-কে অবাক করেছে কলার অনুরোধটা। ইংল্যান্ডে গত সফরে ক্রিকেটাররা প্র্যাক্টিস বা ম্যাচের সময় কলা পাননি। ক্রিকেটারদের বক্তব্য, কলা হল এমন একটা ফল, যা এনার্জির উৎস। সেটা না পাওয়ায় টিমের ক্ষতিই হয়েছে। সিওএ-র পক্ষ থেকে পাল্টা বলা হয়, ক্রিকেটারদের টিম ম্যানেজমেন্টকে বলা উচিত ছিল, বোর্ডের পয়সায় কলা কিনে নিতে।

এ ছাড়া ক্রিকেটারদের অনুরোধের মধ্যে আছে, সঠিক ও বিশ্বমানের জিম থাকা হোটেল যেন বুক করা হয়। ইংল্যান্ডে গত সফরে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয় দিয়ে শুরু করেছিল ভারত। তার পরে ওয়ান ডে এবং টেস্ট সিরিজ হেরে যায়। আগামী মাসেই অস্ট্রেলিয়া সফরে যাচ্ছে টিম। সেই সফরে যাতে স্ত্রী-রা সঙ্গে থাকতে পারেন, সে জন্য ক্রিকেটারদের পক্ষ থেকে সিওএ-কে আবেদন করা হয়েছে। সিওএ জানিয়েছে, স্ত্রী-রা সঙ্গে থাকলেও তাঁরা সরকারি টিম বাসে ভ্রমণ করতে পারবেন না। স্ত্রীদের জন্য আলাদা প্রাইভেট গাড়ি থাকবে। পুরো সফরের জন্য স্ত্রীদের থাকার ব্যাপারটা সিওএ এখনও পুরো মেনে নেয়নি। বলা হয়েছে, চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে টিমের সবার ব্যক্তিগত লিখিত চিঠি সিওএ-র কাছে এই নিয়ে জমা দিতে হবে। সিওএ সদস্য ডায়না এডুলজি জানিয়েছেন, নতুন কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে ওয়াকিবহাল সবার সঙ্গে আলোচনা করা হবে।

এ দিকে বোর্ডের কাছে সিওএ নতুন সুপারিশ জানিয়েছে। বলা হয়েছে বোর্ড যেন এক জন ওম্বুডসমান ও একজন এথিক্স ম্যানেজার নিয়োগ করে। যারা বোর্ডের বার্ষিক সাধারণ সভা এবং বোর্ডের নির্বাচন সুষ্ঠু ভাবে চালাতে সাহায্য করবে। নিজেদের দশ নম্বর স্ট্যাটাস রিপোর্টে সুপ্রিম কোর্টের কাছেও এ কথা জানিয়েছে সিওএ।

আরো পড়ুন
  • 680
লোড হচ্ছে ···
আর নেই